1. admin@notundesh24.com : admin : Md.Murad Hossain
শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০, ০৫:২৪ অপরাহ্ন

শাহেদ, সাব্রিনার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট জব্দ হবে: এনবিআর

  • আপডেট : শুক্রবার, ১৭ জুলাই, ২০২০
  • ৮৪ দেখেছে
ছবি সংগৃহীত

নতুনদেশ২৪.কম : জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) সিওভিড -১৯ টেস্ট কেলেঙ্কারিতে জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেপ্তার হওয়া রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহেদ এবং জে কেজি হেলথ কেয়ারের চেয়ারম্যান ডাঃ সাবরিনা শারমিন হোসেনের অ্যাকাউন্টগুলি হিমায়িত করার জন্য ব্যাংককে নির্দেশ দিয়েছে। শীর্ষস্থানীয় কর প্রশাসন কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে কেন্দ্রীয় ব্যাংকে চিঠি দিয়েছে, এনবিআরের এক শীর্ষ কর্মকর্তা জানিয়েছেন। এনবিআরের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার মহাপরিচালক মোঃ আলমগীর হোসেন, “জে কেজি চেয়ারম্যান সাব্রিনার গ্রেপ্তারের একদিন পরেই আমরা বাংলাদেশ ব্যাংকে একটি চিঠি পাঠিয়েছি। তাদের অ্যাকাউন্টের বিশদ জানতে চেয়ে আমরা তাদের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট জব্দ করতেও বলেছি,” শুক্রবার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানিয়েছেন। এনবিআর রিজেন্ট হাসপাতালের পরিচালক ইব্রাহিম খলিলের অ্যাকাউন্টে জমা করার জন্য সরানো হয়েছে। আলমগীর বলেন, “আমরা যদি ব্যাংক অ্যাকাউন্টে কোনও অনিয়মের প্রমাণ পাই তবে আমরা তাদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেব।” রিজেন্ট হাসপাতালের সদর দফতর এবং দুটি শাখা বন্ধ করে দিয়ে র‌্যাব করোন ভাইরাস চিকিত্সার অজুহাতে লক্ষাধিক টাকার হাজার হাজার অসন্তুষ্ট রোগীকে ধাক্কা দিয়েছিল বলে জানা গেছে। এটি নকল সিভিডি -১৯ পরীক্ষার রিপোর্ট প্রদান ও অন্যান্য অনিয়মের অভিযোগে শাহেদসহ ১৭জনের বিরুদ্ধে মামলাও করেছে। মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে যে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কোভিড -১৯ এর নিখরচায় চিকিত্সা দেওয়ার কথা ভেবেও ভুয়া করোনাভাইরাস পরীক্ষার রিপোর্ট জারি করে প্রায় ২০.১ মিলিয়ন টাকার মধ্যে প্রায় ৬০০০ রোগীকে ফাঁকি দিয়েছিল। পরে স্বাস্থ্য অধিদফতরে তারা 19 কোটি 19 লক্ষ টাকা বিল দেয়। বুধবার র‌্যাব ভারতের সীমান্তবর্তী সাতক্ষীরা গ্রামে শাহেদকে গ্রেপ্তার করে এবং পুলিশে সোপর্দ করার আগে তাকে রর‌্যাব কার্যালয় নিয়ে যায়। সরকারী কার্ডিয়াক সার্জন এবং জে কেজি হেলথ কেয়ার সিইও আরিফুল চৌধুরীর স্ত্রী সাব্রিনা বিনা অনুমতিতে বেসরকারী প্রতিষ্ঠানে চেয়ারম্যানের পদ ধরে চাকরির বিধি লঙ্ঘনের কারণে স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয় থেকে বরখাস্ত করা হয়েছিল। সিওভিড -১৯ পরীক্ষার জন্য জনগণের কাছ থেকে সংগ্রহ করা সোয়াব পরীক্ষা না করে মিথ্যা প্রতিবেদন সরবরাহের জন্য পুলিশ জে কেজি হেলথ কেয়ারের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনে। পরে সাব্রিনাকে গ্রেপ্তার করে একটি আদালত তিন দিনের রিমান্ডে রাখেন। পরে আদালত তাকে রিমান্ডে নেওয়ার জন্য পুলিশকে তিন দিন মঞ্জুর করেন।

ভালো লাগলে এই পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এই কেটাগরির আরো খবর

করোনাভাইরাস

Home | About US | Privacy Policy | Contact Us | Sitemaps
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি.
কারিগরি সহযোগীতায় : আইটি বিভাগ